চার লাখ ৬৪ হাজার পাঁচশত কোটি টাকার বাজেট মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

০৭ জুন,২০১৮

চার লাখ চৌষট্রি হাজার পাঁচশত তেয়াত্তর কোটি টাকার বাজেট মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরের জন্য চার লাখ ৬৪ হাজার পাঁচশত তেয়াত্তর কোটি টাকার বাজেট মন্ত্রিসভায় অনুমোদন।

বৃহস্পতিবার ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার আগে জাতীয় সংসদ ভবনে বিশেষ বৈঠকে মন্ত্রিসভা অনুমোদন দেয়। জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার এ বিশেষ বৈঠক শুরু হয়। এ বৈঠক শেষে দুপুর সাড়ে ১২টায় শুরু হয় বাজেট অধিবেশন।

এটি হবে বর্তমান সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের শেষ বাজেট এবং অর্থমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ১২তম বাজেট। আগামী অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপনের মাধ্যমে একাধারে দশবার বাজেট দিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে যাচ্ছেন।

আগামী অর্থবছরের বাজেটের আকার প্রায় চার লাখ ৬৪ হাজার ৫০০ কোটি টাকা হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। এর মধ্যে মোট রাজস্ব আয় তিন লাখ ৩৯ হাজার ২৮০ কোটি টাকা হতে পারে। আগামী অর্থবছরের জন্য বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে এক লাখ ২৫ হাজার ২৯০ কোটি টাকা বরাদ্দের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া এবারের বাজেটে জনগণের ওপর কোনো বাড়তি করারোপ করা হবে না বলে এরই মধ্যে অর্থমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন।

এদিকে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, প্রতিবারের মতো এবারও ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্থাৎ পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে বাজেট উপস্থাপন করা হবে। ওই দিন বাজেট বক্তৃতা, বাজেটের সংক্ষিপ্তসার, বার্ষিক আর্থিক বিবৃতি, সম্পূরক আর্থিক বিবৃতি, মধ্য মেয়াদি সামষ্টিক অর্থনৈতিক নীতি বিবৃতি, বিকশিত শিশু : সমৃদ্ধ বাংলাদেশ, শিশু বাজেট ২০১৮-১৯, ডিজিটাল বাংলাদেশের পথে অগ্রযাত্রা : হালচিত্র ২০১৮, জলবায়ু সুরক্ষা ও উন্নয়নের লক্ষ্যে বাজেট প্রতিবেদন ২০১৮-১৯, জেন্ডার বাজেট প্রতিবেদন, সংযুক্ত তহবিল-প্রাপ্তি, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সমীক্ষা-২০১৮, মঞ্জুরি ও বরাদ্দের দাবিসমূহ (পরিচালন ও উন্নয়ন), বিস্তারিত বাজেট (উন্নয়ন), মধ্য মেয়াদি বাজেট কাঠামো এবং রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট সংক্ষিপ্তসার ওয়েবসাইটে প্রকাশসহ জাতীয় সংসদ থেকে সরবরাহ করা হবে। একই সঙ্গে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ প্রণীত ব্যাংক, বিমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের কার্যাবলি-২০১৭-১৮ জাতীয় সংসদে পেশ করা হবে।

মন্ত্রণালয় থেকে জানায়, বাজেটকে আরো অংশগ্রহণমূলক করার লক্ষ্যে অর্থ বিভাগের ওয়েবসাইট www.mof.gov.bd-এ বাজেটের সব তথ্য ও গুরুত্বপূর্ণ দলিল যেকোনো ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান পাঠ ও ডাউনলোড করা যাবে এবং দেশ বা বিদেশ থেকে ওই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফিডব্যাক ফরম পূরণ করে বাজেট সম্পর্কে মতামত ও সুপারিশ প্রেরণ করা যাবে। প্রাপ্ত কল মতামত ও সুপারিশ বিবেচনা করা হবে। জাতীয় সংসদে বাজেট অনুমোদনের সময়ে ও পরে তা কার্যকর করা হবে।

মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, ব্যাপকভিত্তিক অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরকারি ওয়েবসাইট লিংক www.bangladesh.gov.bd, www.nrb-bd.org, www.plancomm.gov.bd, www.imed.gov.bd, www.bdpressinform.portal.gov.bd, www.pmo.gov.bd এবং বেসরকারি ওয়েবসাইট লিংক www.bdnews24.com ঠিকানায় বাজেট সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া যাবে।

বাজেট উপস্থাপনের পরের দিন, অর্থাৎ ৮ জুন বিকেল আড়াইটায় ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

মন্তব্য

মতামত দিন

অর্থনীতি পাতার আরো খবর

‘পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৮০০০ টাকা’

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৮ হাজার টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার। এই মজুরি ডিসেম্বর থেকে কা . . . বিস্তারিত

বাংলাদেশে সবচেয়ে দ্রুত হারে বাড়ছে বিশ্বের ‘অতি ধনী’ মানুষ!

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বিশ্বে ‘অতি ধনী’ মানুষের সংখ্যা সবচেয়ে দ্রুতগতিতে বাড়ছে বাংলাদেশে। সম্প্রতি প্রকাশ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com