বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর ভ্যাট আরোপ হবে: অর্থমন্ত্রী

১০ এপ্রিল,২০১৮

ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছর থেকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর মূল্য সংযোজন কর (মূসক বা ভ্যাট) আরোপ করার কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় সোমবার রাতে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের সম্পাদক, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত প্রাক-বাজেট আলোচনার পর অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভ্যাট একটা সমস্যা। আবার ভ্যাট-টা আমরা মেনটেইন করব। কিন্তু সেটা নেব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মালিকদের কাছ থেকে। তারা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কী নেবে, না নেবে জানি না।’

মন্ত্রী আরো বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে সংবাদপত্রের নিউজপ্রিন্টের ওপর শুল্ক কমানো হবে। পাশাপাশি কর্পোরেট কর হারও কমানো হবে। বর্তমানে নিউজপ্রিন্ট আমদানীর ওপর ৫শতাংশ আমদানী শুল্ক, ১২ শতাংশ ভ্যাট ও ৫ শতাংশ এআইটি আরোপ আছে। আগামী বাজেটে ভ্যাট ও এআইটি সমন্বয় করে কমানো হবে। আমদানী শুল্ক ঠিক থাকবে। কর্পোরেট ট্যাক্স কমানো প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ৩৫ থেকে ৪২ শতাংশ পর্যন্ত কয়েকটি স্তর রয়েছে। তবে আসন্ন বাজেটে কর্পোরেট কর হার কমিয়ে দুটি স্তর রাখার চেষ্টা করা হবে।

ফেসবুক ও গুগলে বিজ্ঞাপন সম্পর্কে অর্থমন্ত্রী বলেন, বিষয়টি নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। বাজেটে ফেসবুক, গুগলসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিজ্ঞাপনের আয়ের ওপর চার্জ আরোপ করা হবে। এটি করা সহজ কিনা সাংবাদিকরা জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ইয়েস সম্ভব। অনেক দেশেই তা আছে। এ বাজেটেই করা হবে এটি।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে প্রচারিত ভারতীয় চ্যানেলের ল্যান্ডিং ফি বাড়িয়ে ভরতের ফির সঙ্গে সমন্বয় করা হবে। ভারতে বাংলাদেশের চ্যানেল প্রচারের ক্ষেত্রে ল্যান্ডিং ফি কোটি কোটি টাকা নেয়া হচ্ছে। কিন্তু ভারতের চ্যানেল বাংলাদেশে প্রচারের ক্ষেত্রে মাত্র ৫০ হাজার টাকা ফি রয়েছে। এটি আগামী বাজেটে তাদের সমান করা হবে। তথ্যমন্ত্রণালয় এ উদ্যোগ চাক বা না চাক আমি সেটা করব।

অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, বৈঠকে সম্পাদকরা জাতীয় চরিত্র নিয়ে বেশি আলোচনা করেছেন। তাদের বক্তব্য হচ্ছে, আমরা বক্তব্য দেয়ার সময় ভালো ভালো কথা বলি। কিন্তু বেশিরভাগ বাস্তবায়ন হয় না। এটি আমাদের জাতীয় চরিত্রে পরিণত হয়েছে।

প্রাক-বাজেট বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন অর্থসচিব মো. মুসলিম চৌধুরী, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভুঁইয়া, প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, বিডি নিউজটুয়েন্টিফোরডটকমের সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী, জনকণ্ঠের নির্বাহী সম্পাদক স্বদেশ রায়, বাংলাভিশনের নিউজ অ্যাডভাইজার আবদুল হাই সিদ্দিক, বণিক বার্তার সম্পাদক দেওয়ান হানিফ মাহমুদ, সমকালের প্রকাশক এ. কে. আজাদ।

মন্তব্য

মতামত দিন

অর্থনীতি পাতার আরো খবর

বিশ্বব্যাংকের ভাইস-প্রেসিডেন্ট সাতদিনের সফরে ঢাকায়

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাংকের দীর্ঘস্থায়ী অংশীদারিত্ব আরো জোরদার করতে বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশীয় অঞ্চল . . . বিস্তারিত

রাজনৈতিক পরিস্থিতি যাই হোক, অর্থনীতিতে প্রভাব পড়বে না: অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: কাঙ্ক্ষিত উন্নয়নের জন্য আঞ্চলিক বাধাগুলো ডিঙাতে চায় বাংলাদেশ। নির্বাচনের সময় দেশে রাজনৈতিক . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com