পাচার ঠেকাতে বৈধভাবে বৈধ পথে ইলিশ রপ্তানির সিদ্ধান্ত

০৮ জানুয়ারি,২০১৮

পাচার ঠেকাতে বৈধভাবে বৈধ পথে ইলিশ রপ্তানির সিদ্ধান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: চোরাই পথে ইলিশ মাছে পাচার ঠেকাতে বৈধভাবে রপ্তানির সুযোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

সোমবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান সদ্য প্রতিমন্ত্রী থেকে মন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়া মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ।

নারায়ন চন্দ্র বলেন, ‘আমরা রপ্তানির দিকে যেতে চাচ্ছি এই কারণেও যে আমাদের ইলিশ উৎপাদন বেড়েছে, আন্তর্জাতিক বাজারেও চাহিদা রয়েছে। সেজন্য আমরা কিছুটা রপ্তানি করতে চাই।’

তিনি বলেন, ‘দেশীয় ইলিশ চোরাই পথে যখন বর্ডার পার হয়ে অন্য রাষ্ট্রে যায় তখন বড় বড় ইলিশই যায়। কত বেশি পরিমাণে ইলিশ এভাবে চলে যায় তা আজও ঠিক করে বলা যাচ্ছে না।’

মন্ত্রী বলেন, ‘পাচারকারীরা জীবনের অনেক বেশি ঝুঁকি নিয়ে এসব ইলিশ বিদেশে পাচার করছে। তাদের ঠেকাতে আমরা দফায় দফায় বিজিবির সাথেও মিটিং করেছি। নতুন করে পাওয়া অনেক বড় সমুদ্রসীমা পাহারা দিয়ে ইলিশ পাচার ঠেকানো কঠিন হচ্ছে।’

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘অবৈধপথে পাচারের পথ সংকুচিত করতেই বৈধ পথে ইলিশ রফতানির সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

গরুর মাংসের দাম প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে মাংসের দাম কম। কাজেই অতীতের পর্যায়ে দাম নিয়ে যাওয়া আমাদের জন্য কঠিন হবে। বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজার পরিস্থিতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে দামের ব্যাপারটা মেনে নিতে হয়।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের উৎপাদন যদি আমাদের দেশের চাহিদা পূরণ করতে পারে তাহলে বাইরে থেকে গরু আমদানি কেন। তাতে আমাদের দেশের খামারিরা ধরা খাবে। দেশীয় উৎপাদনকারীরা ঠকে এমন কাজ অবশ্যই করবো না। আন্তর্জাতিক বাজারে যে দাম থাকে সে দামের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে যদি আমরা দেশীয় উৎপাদন দিয়ে সাপ্লাই করতে পারি তাহলে ইন্ডিয়া থেকে গরু আনা সরকার কোনভাবেই বরদাস্ত করবে না।’

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। তিনিও আমাকে শক্তভাবে বলেছেন দেশীয় খামারিদের রক্ষা করতে অবৈধভাবে গরু আমাদানির কোনো অনুমতিতো দেওয়া হবেই না, বরং চোরাই পথেও গরু আনা যেকোনো মূল্যে ঠেকাতে হবে। বর্তমানেও উৎপাদনের মাত্রা যে পর্যায়ে রয়েছে তাতে বাইরে থেকে গরু আমদানীর কোনো প্রয়োজন নেই।’

সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের তথ্যও তুলে ধরেন মন্ত্রী।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব মাকসুদুল হাসান খান ছাড়াও মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য

মতামত দিন

অর্থনীতি পাতার আরো খবর

সক্ষমতা সূচকে একধাপ পেছালো বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বিচারে গত এক বছরে প্রতিযোগিতার সক্ষমতায় বাংলাদেশের কিছুটা উন্নতি . . . বিস্তারিত

নির্বাচনের আগে গ্যাসের দাম বাড়ছে না

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: আপাতত বাড়ছে না গ্যাসের দাম। দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত থেকে সরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশে এনার্জি রেগ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com