ব্রেকিং সংবাদ: |
  • আমি নিজ থেকে শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব নিতে পারি না: মাহাথির
  • বিএনপি নির্বাচন বয়কট করেছে বলে গণতন্ত্র বন্ধ থাকেনি: কাদের
  • মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আসুন ঐক্যবদ্ধ হই: ফখরুল

চালের বাজারে শুল্কের প্রভাব নেই

১৭ জুলাই,২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: আমদানি শুল্ক ২৫ থেকে ১০ শতাংশে কমানোর পরেও এর খুব একটা প্রভাব পড়েনি চালের বাজারে। যদিও বাজারে কিছুটা কমতির দিকে মোটা চালের দাম। তবে, প্রায় আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে চিকন চাল।

চালের ভরা মৌসুমে দরকারি এই পণ্য এখনো বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে। তাই দাম কমানোর ক্ষেত্রে জোরালো নজরদারির দাবি জানিয়েছেন অনেকে।

চালের বাড়তি দাম নিয়ে সমালোচনা শুরু হয় গত বছর থেকেই। তবে চলতি বছর আরও লাগামহীন হয় চালের দাম। পর্যাপ্ত উৎপাদনের কথা বলা হলেও প্রধান কারণ হিসেবে বেশিরভাগ সময় বলা হয়েছে চাল আমদানিতে বাড়তি শুল্ক, প্রাকৃতিক দুর্যোগ এবং মিলার ও মধ্যসত্বভোগীদের সিন্ডিকেটের কথা।

চালের বাজার স্থিতিশীল করতে সম্প্রতি চাল আমদানিতে ১৮ শতাংশ শুল্ক কমিয়েছে সরকার। অর্থাৎ পণ্যটি আমদানি করতে এখন দিতে হবে ১০ শতাংশ শুল্ক। ইতোমধ্যে ভারত ও ভিয়েতনাম থেকেও চাল আমদানি শুরু হয়েছে। ফলে বড় ধরনের কোনো পরিবর্তন না হলেও কিছুটা কমতে শুরু করেছে বিভিন্ন জাতের চালের দাম।

তবে বাজার ঘুরে দেখা গেছে, মোটা চালের দাম অন্যান্য চালের তুলনায় কিছুটা বেশি। প্রতি কেজিতে প্রায় ৪ থেকে ৬ টাকা কমে এটি এখন বিক্রি হচ্ছে ৪২-৪৪ টাকায়।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে গিয়ে দেখা যায়, অন্যান্য জাতের চালের দাম কেজিতে কমেছে এক থেকে তিন টাকা।

মিনিকেট প্রতি কেজি ৫২-৫৪ টাকা, বিআর-২৮ ৪৫- , মাঝারি মানের নাজিরশাইল ৫৫-৫৬ টাকা এবং উন্নত মানের নাজিরশাইল বিক্রি হচ্ছে হচ্ছে ৬০ টাকার ওপরে। দাম কিছুটা কমলেও ক্রেতারা মনে করছেন এখনও বাড়তি চালের বাজার।

কৃষকের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে চাল আমদানিতে শুল্ক বাড়িয়ে ১০ শতাংশ থেকে ২৮ শতাংশ করা হয়। যেটি বর্তমানে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়েছে।

মন্তব্য

মতামত দিন

অর্থনীতি পাতার আরো খবর

বাংলাদেশ থেকে ভারতে জ্বালানি তেল পাচার হঠাৎ বাড়লো কেন?

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: ভারতে জ্বালানি তেলের দাম সর্বকালীন রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছনোর পর প্রতিবেশী বাংলাদেশের সঙ্গে তাদের ড . . . বিস্তারিত

ঈদের বাজারে জাল টাকা চেনার উপায়

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে সমস্ত ব্যাংকগুলোর ওপর জারী করা কেন্দ্র এক নির্দেশনায় ব . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com