রিজার্ভ চুরির ঘটনায় ১৭ কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

০৮ ফেব্রুয়ারি,২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

আরটিএনএন

ঢাকা: বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় অন্তত ১৭ জন কর্মকর্তাকে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে, তদন্তকারি সংস্থা। যার মধ্যে দু’জনকে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে, বিমানবন্দর থেকে।


এক বছরে চুরি হওয়া রিজার্ভের মাত্র ৩৫ ভাগ ফেরত আনতে পেরেছে, বাংলাদেশ। ফিলিপাইন ও শ্রীলংকায় বেশ কয়েকজন চিহ্নিত হলেও, হ্যাকিংয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের কারা সহায়তা করেছে সেটি পরিষ্কার করছে না সিআইডি।তবে, কম সময়ের মধ্যেই গ্রেপ্তার হতে পারেন নজরদারিতে থাকা কর্মকর্তারা।


বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি দেশের আর্থিক খাতে এক কলঙ্কজনক অধ্যায়, গত বছরের ২০১৬ সালের ৫ই ফেব্রুয়ারি বিদেশে বসে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে চুরি করা হয় ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার। যার মধ্যে ২ কোটি ডলারের শ্রীলঙ্কায়, আর ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার যায় ফিলিপাইনে। এর মধ্যে শ্রীলঙ্কায় যাওয়া পুরো টাকা ফেরত পেয়েছে বাংলাদেশ। তবে তদন্তে বেরিয়ে এসেছে চমকপ্রদ সব তথ্য।


তদন্ত সংশ্লিষ্টরা জানান, রিজার্ভ চুরি ৬ দিন আগে অর্থাৎ ৩১শে জানুয়ারি রাত থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্ভার চলে যায় হ্যাকারদের হাতে। আর পয়লা ফেব্রুয়ারি শ্রীলঙ্কান এনজিও শালিকা ফাউন্ডেশন এবং জয়দেব নামের একজনের সাথে চুক্তি হয় শালিখার হিসাবে বড় অঙ্কের অর্থ ঢুকবে, যার ১৫ ভাগ পাবে তারা।


সিআইডি মুখপাত্র জানান, যেকোন সময়েই সন্দেহের তালিকায় থাকা ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করা হতে পারে। শিগগিরই দেয়া হবে চার্জশিটও। গত বছরের ১৫ মার্চ রিজার্ভ চুরির তদন্তভার পায় সিআইডি।

মন্তব্য

মতামত দিন

অর্থনীতি পাতার আরো খবর

ইসলামী ব্যাংক ইসলামী শরিয়াহ থেকে বিচ্যুতি ঘটলে আমি নিজেই থাকব না: আরাস্তু খান

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: অপসারিত ভাইস-প্রেসিডেন্ট আহসানুল আলমের সব অভিযোগ খারিজ করে দিয়ে ইসলামী ব্যাংকের চেয়ারম্য . . . বিস্তারিত

অগ্রণী ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস, বিকেলের পরীক্ষা বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক আরটিএনএন ঢাকা: অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠেছে। প্রশ্ন . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com