ভোটের অধিকার ফেরাতে সব করবো: ড.কামাল

১২ ফেব্রুয়ারি,২০১৯

ভোটের অধিকার ফেরাতে সব করবো: ড.কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: দেশের ১৬ কোটি মানুষকে ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে যা যা করণীয় তা অন্তত করবেন বলে জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বর যা ঘটেছিল তা প্রহসন। অনেকেই বলেছেন এটা নাটক, এটা দুঃখজনক। কেন এসব করতে হবে?

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে গণতন্ত্রের মানসপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর পুত্র প্রয়াত রাশেদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুতে আয়োজিত এক শোকসভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, নির্বাচনের পর দিন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বলা হল আমরা আরও ৫ বছর ক্ষমতায় থাকবো। এ কথা বলে তারা ১৬ কোটি মানুষকে অপমান করেছে। এটা মেনে যায় না।

শোকসভায় জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব বলেন, যারা কারাগারে আছে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন ছাড়া তাদের মুক্ত করা যাবে না। আজকে যারা ক্ষমতায় আছে তাদের মধ্যে সেই মনুষত্ব নেই।

তিনি বলেন, ১৬ কোটি মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে। কিন্তু কোথাও কেউ প্রতিবাদ করল না। এটা কি শুধু কোনও রাজনৈতিক নেতা করবে, কোনও রাজনৈতিক দল করবে? এটা হয় না। সারা দেশে বর্তমানে এক লক্ষ লোক কারাগারে আছে। এদেরকে মুক্ত করতে আসুন ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করি।

তত্তাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মঈনুল ইসলাম বলেন, আমলাতান্ত্রিক সহযোগিতায় আওয়ামী লীগ জনগণকে ভোটের অধিকার থেকে বঞ্চিত করেছে। আসলে তারা এটা করে নিজেরা নিজেদের বঞ্চিত করেছে। এটা স্বাধীন দেশের মানুষের জন্য লজ্জার।

তিনি বলেন, রাজনীতি এখন ব্যবসা হয়ে গেছে। এটা রাজনীতি নয়। দেশের রাজনীতি শেষ হয়ে গেছে। অবসরপ্রাপ্ত আমলাদের রাজনীতিতে নেয়া হয় না। এখানে পুলিশও জড়িত হয়েছে। তারা দেশের মানুষ পেটায়। আজকে তারা মনে করে তাদের ছাড়া ড. কামালরা কি দেশ চালাতে পারবে? এখন দেশে যা চলছে তা আমলাতান্ত্রিকতা। শেখ হাসিনার কিছু করার নেই।’

রাশেদ সোহরাওয়ার্দীর লাশ দেশে না আনা প্রসঙ্গে ব্যারিস্টার মঈনুল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার এখন ক্ষমতায়। চাইলে রাশেদের মৃতদেহটা দেশে আনতে পারতো। কেন যে আনা হলো না- খুব কষ্ট হচ্ছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মঈন খান বলেন, দেশে উদার গণতন্ত্র অনুপস্থিত। রাজনীতির নামে এখন চারদিকে হিংসা আর বিদ্বেষ।

তিনি বলেন, দেশের কল্যাণে আসুন রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ভুলে একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে দেশকে গণতান্ত্রিক ধারায় ফিরিয়ে আনি।

শোকসভায় আরও বক্তব্য দেন, গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, প্রেসেডিয়াম সদস্য মোকাব্বি খান, আমসা আমিন ও জগলুল হায়দার আফ্রিক প্রমুখ।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

জামায়াতে ইসলামীর নতুন সংগঠন হলে সেখানে ‘ইসলাম’ শব্দ থাকবে?

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশে ইসলামপন্থী দল জামায়াতে ইসলামীর গুরুত্বপূর্ণ একজন নেতা ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাকের পদ . . . বিস্তারিত

জামায়াতে ইসলামীকে কতটা নাড়া দিতে পেরেছেন ব্যারিস্টার রাজ্জাক

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশের একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র বিবিসিকে বলেছেন ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাকে . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com