আওয়ামী লীগের লোকজনও জানে না, কেন তাদের মন্ত্রিত্ব নেই: মেনন

০৩ ফেব্রুয়ারি,২০১৯

আওয়ামী লীগের লোকজনও জানে না, কেন তাদের মন্ত্রিত্ব নেই: মেনন

নিউজ ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: ক্ষমতা ক্রমান্বয়ে কেন্দ্রীভূত হচ্ছে দাবি করে ওয়ার্কাস পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ‘শুধু আমরা নই, আওয়ামী লীগের লোকজনও জানে না, কেন তাদের মন্ত্রিত্ব নেই। আমরাও জানি না, কেন আমাদের মন্ত্রিত্ব নেই? আওয়ামী লীগের একজন সিনিয়র নেতাকে জিজ্ঞাসা করলাম ‘চিফ হুইফ’ কে হচ্ছে? বললো, ভাই, জানি না। সুতরাং এটা হচ্ছে তৃতীয় বিশ্বের দেশে রাজনীতির পরিণতি, যেখানে ক্ষমতা ক্রমান্বয়ে কেন্দ্রীভূত হচ্ছে। সেই জায়গা থেকে প্রধানমন্ত্রী মনে করেছেন, আমাদের মন্ত্রিসভায় রাখার প্রয়োজন নেই; তাই রাখেননি।

রবিবার রাশেদ খান মেনন এ সব কথা বলেন।

মন্ত্রিত্ব প্রসঙ্গে মেনন বলেন, প্রথম থেকেই দুর্ভাগ্যজনকভাবে আওয়ামী লীগ সঠিকভাবে জোট চর্চা করেনি বা করতে চায়নি। আমরা যেটা বারবার ১০ বছরে জোর দিয়ে বলেছি, আপনারা জোট চর্চা করুন। এই জোট চর্চার অপব্যবহারের কারণে একটি কেন্দ্রীভূত জায়গায় এসেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছেই সমস্ত ক্ষমতা।

সংসদে ১৪ দলীয় জোট বিরোধী দলে যাবে না বলে জানিয়ে মেনন বলেন, আমি তো জাতীয় পার্টি না! আমাকে যদি এরশাদের সঙ্গে তুলনা করেন, তাহলে ভুল করবেন। সকালে এক কথা বললো, বিকালে আরেক কথা বললো। আমরা তাদের মতো না।

মেনন বলেন, আমি নির্বাচনে বক্তব্য দিয়েছি উন্নয়নের পক্ষে। আমি বক্তৃতা করেছি আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার পক্ষে। তাহলে এখন কীভাবে পাল্টা বক্তব্য দেবো? আমি তো ভোটের আগে উন্নয়নের কথা বললাম, এখন এর বিরুদ্ধে বক্তব্য দিলে তার কোনও বিশ্বাসযোগ্যতা থাকবে?

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

২২ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্ট অডিটরিয়ামে গণশুনানি করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি (শুক্রবার) সুপ্রিম কোর্ট অডিটরিয়ামে গণশুনানি কর্মসূচি পালন করবে জাতীয় . . . বিস্তারিত

জামায়াতে ইসলামীর নতুন সংগঠন হলে সেখানে ‘ইসলাম’ শব্দ থাকবে?

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশে ইসলামপন্থী দল জামায়াতে ইসলামীর গুরুত্বপূর্ণ একজন নেতা ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাকের পদ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com