‘খাবারের উচ্ছিষ্ট দেখলে কাক আর ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট দেখলে আসে বিএনপি’

১১ অক্টোবর,২০১৮

‘খাবারের উচ্ছিষ্ট দেখলে কাক আর ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট দেখলে আসে বিএনপি’

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
ঢাকা: ‘খাবারের উচ্ছিষ্ট দেখলে যেমন কাক আসে, তেমনি ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট দেখলে বিএনপি নেতারা আসে’- বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সভায় তিনি এসব কথা বলেন। প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা পুলিন দে ও আতাউর রহমান খান কায়সার স্মরণে এ সভার আয়োজন করা হয় হয়।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে রাজনৈতিক দল গঠন করেছিল।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘রাজনীতি এখন রাজনীতিবিদদের হাতে নাই। রাজনীতির নিয়ন্ত্রণ এখন অনেকটাই হারিয়ে ফেলেছে রাজনীতিবিদরা। রাজনীতির এই দুর্বৃত্তায়ন শুরু করেছিল জিয়াউর রহমান। জিয়াউর রহমান প্রকাশ্যে বলতেন, ‘মানি ইজ নো প্রব্লেম’।’

হাছান মাহমুদ ইতিহাস স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, ‘আইয়ুব খান ক্ষমতায় এসে রাজনৈতিক দল গঠন করেনি। বরং মুসলিমলীগের একটি অংশের নেতৃত্ব নিয়েছিল। কিন্তু জিয়াউর রহমান একধাপ এগিয়ে ছিলেন। তিনি অন্য দলের নেতাদের ভাগিয়ে এনে দল করেছিলেন।’

বিএনপি নেতাদের ইঙ্গিত করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘মির্জা ফখরুল, অাবদুল্লাহ অাল নোমান বাম রাজনীতি করতেন। ক্ষমতার উচ্ছিষ্টের লোভে তারা বিএনপিতে এসেছিল।’

ড. কামাল ও বি চৌধুরীকে ইঙ্গিত করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘তারা বিএনপি'র সঙ্গে হাত মিলিয়ে স্বাধীনতা বিরোধীদের দোসরে পরিণত হয়েছে। শেষ বয়সে এসে তারা জঙ্গী গোষ্টী, স্বাধীনতা বিরোধীদের দোসরে পরিণত হয়েছে। কথায় কথায় তারা মানবাধিকারের কথা বলে। তারা এমন কয়েকটি দলের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে যারা (বিএনপি) কংগ্রেসম্যানের সই জাল করে।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

মজিবুর রহমানকে জামায়াত থেকে বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ইসলামী ছাত্রশিবিবের সাবেক সভাপতি, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য মজ . . . বিস্তারিত

ক্ষমা চাইলেও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলবে: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিষ্টার আবদুর রাজ্জাকের পদত্যাগ নিয়ে এখনই ম . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com