কুমিল্লার মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর

১৩ সেপ্টেম্বর,২০১৮

কুমিল্লার মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
কুমিল্লা: কুমিল্লার মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর করেছে আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেল পাঁচটায় কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ কে এম সামছুল আলম ওই আদেশ দেন। এর আগে সকাল সাড়ে নয়টায় এই মামলার অধিকতর শুনানি হয়। পরে বিকেল তিনটায় রায় দেবেন বলে জানানো হয়। এরপর বিকেল পাঁচটায় ওই রায় দেওয়া হয়।

এর আগে গতকাল বুধবার বিকেল তিনটায় কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে কাভার্ডভ্যান পোড়ানোর মামলার অধিকতর শুনানি হয়েছিল। খালেদা জিয়া বর্তমানে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরোনো কারাগারে আছেন।

এ প্রসঙ্গে কুমিল্লায় বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী মো. কাইমুল হক বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে হয়রানি করার জন্য এই মামলা হয়েছে। আমরা সবার সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেব। ’

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারি সকালে চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার হায়দারপুল এলাকায় পণ্যবাহী একটি কাভার্ডভ্যানে আগুন দেয় হরতালের সমর্থকরা। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ওই দিন দুপুরে ওমর ফারুক মিয়াজী নামের এক শিবিরকর্মীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী খালেদা জিয়াসহ ৩২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ১০ থেকে ১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। মামলায় খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়। তিনি ওই মামলার ৩২ নম্বর আসামি। চৌদ্দগ্রাম থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নুরুজ্জামান হাওলাদার বাদী হয়ে ওই মামলা দায়ের করেন।

এদিকে চলতি বছরের ২৩ এপ্রিল কুমিল্লার বিশেষ ট্রাইব্যুনাল ১-এ খালেদা জিয়ার জামিন চেয়ে তার আইনজীবীরা আবেদন করেন। এরপর ৭ জুন আবেদনের শুনানির দিন ধার্য হয়। পরে ট্রাইব্যুনাল শুনানি না করে তার আইনজীবীরা সরাসরি হাইকোর্টে জামিন চান। ২৮ মে এই মামলায় তাকে ছয় মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট। এরপর রাষ্ট্রপক্ষ জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেন। ওই আবেদন নিষ্পত্তি করে আপিল বিভাগ গত ২৬ জুন খালেদা জিয়ার জামিন বহাল রাখার আদেশ দেন। একই সঙ্গে হাইকোর্টকে জামিন চাওয়ার বিষয়টি আইনগতভাবে গ্রহণযোগ্য হয়েছে কিনা জানতে চান। হাইকোর্ট গত ১৩ আগস্ট বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে নিম্ন আদালতকে নির্দেশ দেন। গত ২০ আগস্ট কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ কে এম সামছুল আলমের আদালতে এ নিয়ে শুনানি হয়। তখন আদালত ৩০ আগস্ট দিন ধার্য করেছিলেন।

গত ৩০ আগস্ট দুপুরে খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতে শুনানিতে অংশ নেন। এদিন রাষ্ট্রপক্ষ অধিকতর শুনানির জন্য আবেদন করেন। তখন শুনানি শেষে জেলা ও দায়রা জজ কে এম সামছুল আলম অধিকতর শুনানির জন্য ১২ সেপ্টেম্বর নতুন তারিখ ধার্য করেন। গতকাল বুধবার এই মামলার অধিকতর শুনানি হয়। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টায়ও শুনানি হয়। শুনানি শেষে বিকেলে ওই রায় দেওয়া হয়।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

বন্দী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: দুই মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেলখানায় বন্দী বিএনপি চেয়ারপর্সনের বিরুদ্ধে ধর্মীয় উস্কানির এক . . . বিস্তারিত

জনগণের আস্থা ও বিশ্বাসের মূল্য দিতে সবার জন্য কাজ করবো: প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অঙ্গীকার ব্যক্ত করে বলেছেন, ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে জনগণের প্রদত্ত আস্থ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com