সাবেক এমপি শামসুল ইসলাম জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর

১৩ মার্চ,২০১৮

সাবেক এমপি শামসুল ইসলাম জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর

নিউজ ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: সাবেক এমপি মাওলানা আ. ন. ম. শামসুল ইসলামকে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর করা হয়েছে।

এর আগে তিনি দলটির নায়েবে আমীর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

গত ১২ মার্চ দলটির ভারপ্রাপ্ত আমির ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমানকে গ্রেপ্তার হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে সংগঠনের গঠনতন্ত্র মোতাবেক শামসুল ইসলামকে ভারপ্রাপ্ত আমীর নিযুক্ত করা হয় বলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

অধ্যাপক মুজিবুরসহ ১০ নেতা কারাগারে
রাজশাহীতে গ্রেপ্তার জামায়াতের ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর মুজিবুর রহমানসহ ১০ নেতাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। আর তাদের বিরুদ্ধে বোয়ালিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার বিকালে নগরীর বোয়ালিয়া থানায় মামলাটি করা হয়।

নগরীর মালোপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক নাসির হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন।

তিনি জানান, বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা এ মামলায় পুলিশের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় নাশকতার পরিকল্পনা করার উদ্দেশ্যে এই ১০ জামায়াত নেতা গোপন বৈঠক করছিলেন। এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে বিকালে আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আদালতে তাদের প্রত্যেকের সাত দিন করে রিমান্ডেরও আবেদন করা হয়েছে।

এর আগে সকালে নগরীর হেতেমখাঁ ছোট মসজিদ এলাকায় মহানগর জামায়াতের রোকন মুজিবুর রহমানের বাড়ি থেকে ১০ নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার ১০ নেতার মধ্যে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর মুজিবুর রহমান এবং বাড়ির মালিক মুজিবুর রহমানও আছেন। রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) ও বোয়ালিয়া থানা পুলিশ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার অন্য আট নেতা হলেন- রাজশাহী জেলা (পূর্ব) আমীর রেজাউর রহমান, জেলা (পশ্চিম) আমির আবদুল খালেক, মহানগর আমির ড. আবুল হাশেম, সেক্রেটারি সিদ্দিক হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আমীর আবুজার গিফারী, রোকন রফিকুল ইসলাম, রাজশাহী জেলা পূর্ব জামায়াতের সদস্য ময়নুল হোসেন এবং গোদাগাড়ী থানা জামায়াতের কর্মী তৈয়ব আলী।

মহানগর ডিবি পুলিশের সহকারী কমিশনার আল-আমিন হোসাইন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জামায়াত নেতারা জানান- আগামী সিটি নির্বাচনকে ঘিরে তারা দলীয় সভা করছিলেন। তবে এ ব্যাপারে তাদের আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন। তাই আদালতে তাদের প্রত্যেকের সাত দিন করে রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে।

আল-আমিন হোসাইন জানান, আদালত রিমান্ড আবেদন গ্রহণ করেছে। তবে শুনানি হয়নি। পরবর্তীতে শুনানি হবে। আসামিদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আদালতে আসামিদের রিমান্ড মঞ্জুর হলে তাদের ফের থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

খালেদা জিয়ার জামিননামা কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিননামা আদালত থেকে ক . . . বিস্তারিত

গাজীপুরবাসীকে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেয়ার আহবান মির্জা ফখরুলের

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: গাজীপুরবাসীকে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিয়ে সাংবিধানিক অধিকার প্রয়োগের আহবান জানিয়েছেন বিএনপি মহা . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com