তামিলনাড়ুতে অগ্নিকাণ্ডে ৯ জন নিহত

১২ মার্চ,২০১৮

তামিলনাড়ুতে অগ্নিকাণ্ডে ৯ জন নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: ভারতের দক্ষিণের সর্বাপেক্ষা অধিক পরিমাণ নগরায়িত রাজ্য তামিলনাড়ুতে পাহাড়ি বনে সৃষ্ট আগুনে লোকালয়ের অন্তত ৯ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

নিহতদের মধ্যে এক শিশু, ৪ জন নারী ও ৪ জন পুরুষ রয়েছে। তাদের প্রায় সবার বয়সই ৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। অগ্নিকাণ্ডে আটকা পড়েছেন আরও বেশ কিছু লোক। এর মধ্যে উদ্ধারকারীরা ২৭ জনকে উদ্ধার করেছে। উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত আছে।

গতকাল রবিবার ওই রাজ্যের থেনি জেলায় কুরাঙ্গানি পাহাড়ে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের সৃষ্টি হলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

এর মধ্যে মারাত্মক অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় ৮ জন স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে সোমবার সকালে উদ্ধার অভিযানে নেমেছে গারু কমান্ডো ফোর্সের ১৬টি কমান্ডো ও ভারতীয় বিমান বাহিনীর তিনটি হেলিকপ্টার। স্ট্যান্ডবাই রাখা হয়েছে আরও একটি হেলিকপ্টার।

তবে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডকে দাবানল বলা হবে কিনা তা এখনও নিশ্চিত করা হয়নি বলে দেশটির গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সি বিজয়াভাস্কর।

তামিলনাড়ুতে জামানত বাতিল হল বিজেপি’র
দিল্লি: গুজরাতের ক্ষত এখনো টাটকা। তামিলনাড়ুতেও ভরাডুবি হল বিজেপির। এতটাই, যে ‘নোটা’র চেয়ে অর্ধেক ভোট কম পেয়ে জামানত বাতিল হল দলটির।

বিজেপি অবশ্য সান্ত্বনা পেয়েছে উত্তরপ্রদেশ আর অরুণাচলে। কিন্তু সরকার থাকা সত্ত্বেও উত্তরপ্রদেশে জয়ের ব্যবধান কমল প্রায় ২৭ হাজার। আর অরুণাচলের দু’টি কেন্দ্রে পাঁচশ’র কম ব্যবধানে জয় এসেছে বিজেপির ঝুলিতে। সব মিলিয়ে চার রাজ্যের পাঁচ উপনির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গ, তামিলনাড়ুতে জয় মেলেনি। বাকি তিনটিতে জিততে বেশ কসরত করতে হয়েছে বিজেপিকে।

কিন্তু গুজরাতে জিতেও যে বড় ধাক্কা খেতে হয়েছে, এর প্রমাণ মিলল অমিত শাহের কথায়। বিজেপি সভাপতি বলেন, ‘গুজরাত-হিমাচলের পর পাঁচ আসনে তিনটিতে দলের জয় হয়েছে। আশা করি কংগ্রেস নেতারা আজকেও ‘নৈতিক জয়’-এর দাবি করবেন না।’ প্রচারে নামলেন মোদীও। পশ্চিমবঙ্গে দলের ভাল ভোট মেলার পাশাপাশি তিন আসনে জেতাকে বড় করে দেখালেন তিনি।

কিন্তু উভয়ের কেউই তামিলনাড়ু নিয়ে টুঁ শব্দ করলেন না। আর দু’জনেই মেলে ধরলেন উত্তরপ্রদেশের গ্রামীণ কেন্দ্র সিকান্দ্রার ‘সাফল্য’কে। কারণ নিজেদের রাজ্য গুজরাতে গ্রামেই বড়সড় হোঁচট খেতে হয়েছে নরেন্দ্র মোদীকে। সমাজবাদী পার্টি আর কংগ্রেস আলাদা না-লড়লে আসনটি বিজেপি পেতই না। মোদী বলেন, ‘সিকান্দ্রার জয় গ্রামের প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতার নিদর্শন।’ অমিতও শোনালেন গ্রামে কৃষকদের মধ্যে বিজেপির সমর্থনের কথা।

আজকের ফলে কংগ্রেসের সাফল্য তেমন নেই। কিন্তু দলের নেতারা বলছেন, এই তামিলনাড়ুতেই জয়ললিতার ঘনিষ্ঠ শশিকলাকে রাজনৈতিক ময়দান থেকে দূরে রেখে এডিএমকে-র বিবদমান দুই গোষ্ঠীকে এক ছাতায় নিয়ে আসতে আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন মোদী-শাহ। ভোটের ফলে দেখা গেল, সেই চেষ্টা মুখ থুবড়ে পড়েছে। আর মোদীর ‘জাদু’ যে কতটা, তা স্পষ্ট ‘নোটা’-র থেকেও পিছিয়ে থাকায়। বিজেপি সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামীও প্রশ্ন তুলেছেন, কোথায় গেল দায়বদ্ধতা?

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল গুলশান থেকে আটক

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলকে গ্রেপ্তার করে . . . বিস্তারিত

জনগণকে মালিকের ভূমিকায় আসতে হবে, সেটা সরকারকে বুঝিয়ে দিতে হবে: ড. কামাল

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনযশোর: জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ায় আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘সরকার তো জনগ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com