অন্য কোনো মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

১৩ ফেব্রুয়ারি,২০১৮

অন্য কোনো মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: ‘জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা ছাড়া আর কোনো মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়নি’ বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে তার নিজ দপ্তরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। এসময় তিনি বিএনপির আন্দোলনে বাধা না দেওয়া ও খালেদা জিয়াকে পুরাতন কারাগারে রাখার ও প্রশ্নপত্র ফাঁস প্রসঙ্গে কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, খালেদা জিয়াকে কোনো মামলাতেই শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানো হয়নি। তাকে শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানো হয়েছে বলে যেসব সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে, তা সত্য নয়।

তিনি আরো বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া শুধুমাত্র জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় কারাগারে রয়েছেন। উনি আদালত কর্তৃক যে মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হয়েছেন সেই মামলাযতেই কারাবন্দী আছেন। এছাড়া অন্য কোনো মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়নি। বা এ ধরণের কোনো কিছু আমলে আনা হয়নি।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপসন বেগম খালেদা জিয়ার নামে যেসব মামলার ওয়ারেন্ট আছে সেসব মামলায় তাকে এখনো আটক দেখানো হয়নি বা দেখানো হবেও না। কয়েকদিন ধরে যেটা গণমাধ্যমে প্রচার হচ্ছে এটা ভুল ইনফরমেশন ছিল।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, ‘তার (খালেদা জিয়া) নামে আরও দুটি মামলা রয়েছে, সেসব মামলায় তিনি যথাসময়ে আদালতে যাবেন। এখানে আমাদের করার কিছু নেই। আর দুটি মামলায় জামিনে আছেন। তার নামে যেসব মামলা আছে যেমন শাহবাগ থানার একটি ও বড় পুকুরিয়া কয়লা খনি মামলায় চলতি মাসের ১৮ তারিখে হাজিরা দিতে যাবেন।’

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে যেসব মামলায় পরোয়ানা রয়েছে সেগুলোতে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হবে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘দেখুন আদালতই সিদ্ধান্ত নেবেন কোন মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হবে।’

খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে পরিত্যক্ত কারাগারে যেখানে কোনো সুযোগ সুবিধা নেই। তার পায়ের সমস্যা অথচ তাকে দুই তলায় রাখা হয়েছে। কেন তাকে নতুন কারাগারে নেয়া হয়নি - এ প্রসঙ্গ তুলতেই মন্ত্রী বলেন, দেখুন এটা তার সামাজিক মর্যাদার বিবেচনায় করা হয়েছে। তাকে দীর্ঘপথ কাশিমপুর কিংবা কেরাণীগঞ্জ নিয়ে গেলে সেখান থেকে আনা নেওয়া সমস্যা তৈরি হবে। সেখানে অনেক বেশি কয়েদি থাকায় তার সমস্যা হবে। এজন্য তার সামাজিক মর্যাদা বিবেচনা করেই তাকে এখানে রাখা হয়েছে।’

বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে খালেদা জিয়ার কারাবাস দীর্ঘায়িত করতে সরকার চেষ্টা করছে এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার অতি উৎসাহী হয়ে কোনো কিছুই করছে না। বরং আদালত যেভাবে নির্দেশনা দেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বা সরকার তার বাইরে যায়নি। আমরা শুধু আদালতের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করছি।’

বিএনপির পক্ষ থেকে মানববন্ধন করা হচ্ছে সেখানে বাধা দেয়া হচ্ছে না। সরকার কি তার আগের ভূমিকা থেকে অবস্থানগত পরিবর্তন করেছে কিনা - এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘দেখুন সরকার আগেও কখনো অতি উৎসাহিত হয়ে কিছু করেনি এখনও করছে না। তারা যে পর্যন্ত যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না করে এবং কোনো খারাপ পরিস্থিতির সৃষ্টি না করে ততক্ষণ পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কোনো অ্যঅকশন নেয়না।’

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন পুলিশের কাছ থেকে রাইফেল ছিনিয়ে নিয়ে পুলিশকে মারা হয়েছে। প্রিজনভ্যান ভেঙ্গে আসামি ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। আমরা ভিডিও ফুটেজ দেখে যাদেরকে চিহ্নিত করতে পেরেছি তাদেরকে গ্রেপ্তার করেছি। তার বাইরে কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।’

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন,‘প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত মূল হোতারা অবিলম্বে গ্রেপ্তার হবে। এ পর্যন্ত যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তারা প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে কোনো না কোনোভাবে জড়িত। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সুনির্দিষ্টভাবে শনাক্ত করেই তাদের গ্রেপ্তার করেছে।’

এছাড়া এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের হোতাদের ধরা হবে। এরই মধ্যে এ প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। কেউ রেহাই পাবে না।

তিন মামলায় খালেদা জিয়াকে ‘শ্যোন অ্যারেস্ট’ দেখানো হয়েছে: আইজি প্রিজন্স
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কুমিল্লার তিনটি মামলায় গ্রেপ্তার (শ্যোন অ্যারেস্ট) দেখানো হয়েছে। মামলা তিনটি তেজগাঁও, শাহবাগ ও কুমিল্লা থানার।

সোমবার সন্ধ্যার দিকে এ খবর নিশ্চিত করেন আইজি (প্রিজন্স) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন।

এর আগে সোমবার সকালে কুমিল্লা আদালতের একটি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। কুমিল্লার কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক সুব্রত ব্যানার্জি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বিএনপির চেয়ারপারসনকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে বলে জানিয়েছেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী ও বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্য মো. কাইমুল হক।

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের মিয়াবাজার সংলগ্ন জগমোহনপুর এলাকায় বাসে পেট্রলবোমা নিক্ষেপের মামলায় গত ২ জানুয়ারি খালেদা জিয়াসহ ৪৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। ২৫ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লার আমলি আদালতে (চৌদ্দগ্রাম) ওই মামলার বিচারকার্যের দিন ধার্য করা হয়েছে।

সুব্রত ব্যানার্জি জানান, জগমোহনপুর এলাকায় বাসে পেট্রলবোমা নিক্ষেপের মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ‘আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে পাঠানো হয়। বিষয়টি এখন ঢাকার এখতিয়ারে। আমাদের এখানে কিছু নেই।’

খালেদা জিয়ার আইনজীবী মো. কাইমুল হক জানান, সোমবার গুলশান থানা-পুলিশ ওই মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ২ ফেব্রুয়ারি রাত আনুমানিক সাড়ে তিনটার দিকে কক্সবাজার থেকে ঢাকাগামী আইকন পরিবহনের একটি বাস কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার জগমোহনপুর এলাকায় আসামাত্র দুর্বৃত্তরা পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করে। এতে ঘটনাস্থলে সাতজন ও হাসপাতালে নেওয়ার দুদিন পর আরও একজনসহ মোট আটজন মারা যান ও ২৭ জন আহত হন। এ ঘটনায় ২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে চৌদ্দগ্রাম থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নুরুজ্জামান হাওলাদার বাদী হলে দণ্ডবিধির ৩০২/৩৪ ধারায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলা তদন্ত করেন চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই মো. ইব্রাহিম। দুই বছর এক মাস তিন দিন পর ২০১৭ সালের ৬ মার্চ কুমিল্লার আদালতে ওই দুই মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

এই মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার, রফিকুল ইসলাম মিয়া, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ও সালাউদ্দিন আহমেদ, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ ও বিএনপির উপদেষ্টা সাবেক সাংসদ মনিরুল হক চৌধুরী, চৌদ্দগ্রামের জামায়াতের সাবেক সাংসদ সৈয়দ আবদুল্লাহ মো. তাহের, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াতের আমির সাহাবউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. মিজানুর রহমান, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াতের সাবেক আমির শাহজাহান, চিওড়া ইউনিয়ন জামায়াতের সাবেক আমির মেজবাহ উদ্দিন ওরফে নয়ন, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা বিএনপির সভাপতি কামরুল হুদাসহ ৭৮ জনের নামে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। খালেদা জিয়া মামলার ৫১ নম্বর আসামি।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

খালেদা জিয়ার রোগ ও কারামুক্তি কামনায় গুলশানে দোয়া মাহফিল

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে তার আশু রোগ . . . বিস্তারিত

বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকীর মিলাদে হাসিনা-রেহানা

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার বাদ আছর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com