সর্বশেষ সংবাদ: |
  • গাড়িবহরে হামলার বিষয়ে ড. কামালের সংবাদ সম্মেলন শুক্রবার বিকালে
  • তৃতীয় বেঞ্চে আজ শুনানি হতে পারে খালেদা জিয়ার রিট
  • নির্বাচনী সহিংসতা ‘তৃতীয় শক্তির পাঁয়তারা’ কি না খতিয়ে দেখতে গোয়েন্দা সংস্থাকে নির্দেশ সিইসির

জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়

১২ জানুয়ারি,২০১৮

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: মহাজোট সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের চার বছর পূর্তি উপলক্ষে শুক্রবার সাড়ে ৭ সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার এবং বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ও রেডিও স্টেশনে ভাষণ সরাসরি সম্প্রচার করবে।

সরকারের প্রতিটি বর্ষপূর্তিতে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়ে থাকেন প্রধানমন্ত্রী। তার সরকারের প্রধান সাফল্য, চলমান নানা উদ্যোগ ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার বিষয়গুলো প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে থাকে।

সরকারের সূত্রগুলো বলছে, এবার নির্বাচনের বছর। পূর্ববর্তী বছরগুলোর ন্যায় প্রধানমন্ত্রী তার সরকার প্রধান সাফল্যগুলো এবং সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নির্মাণে আগামী বছরে তার বিরামহীন ও জোরালো প্রচেষ্টা ও অগ্রাধিকারের বিষয়গুলো তুলে ধরবেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে জয়ী হয় আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট। ১২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মন্ত্রিসভা শপথ নেয়। সম্প্রতি মন্ত্রীসভায় কয়েকজনের দপ্তর রদবদল এবং নতুন কয়েকজনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের ধারাবাহিক দ্বিতীয় মেয়াদের পঞ্চম বছরের শুরু আজ। এ সময়ে তার নেতৃত্বে দেশ অর্থনীতি, অবকাঠামো, কূটনীতি, জাতীয় নিরাপত্তা এবং সামগ্রিক উন্নয়নে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুলভাবে বিজয় অর্জনের পরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে নেতৃত্ব দানকারী আওয়ামী লীগ ২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করে।

গত ৫ বছরে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্জন ছিল বিশাল। আন্তর্জাতিক মর্যাদা, সুনাম ও নানামুখী স্বীকৃতি অর্জন করেছে তার সরকার। পালিয়ে আসা হাজার হাজার রোহিঙ্গাদের আশ্রয়দানের মাধ্যমে তিনি ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ এবং ‘নিউ স্টার অব দ্য ইস্ট’ হিসেবে অনন্য স্বীকৃতি অর্জন করেন।

প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ গতবছর অবকাঠামো উন্নয়ন, দারিদ্র্র নিরসন, বিদ্যুৎ উৎপাদন, পুষ্টি, মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্য, প্রাথমিক শিক্ষা এবং নারীর ক্ষমতায়নে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে।

আর্থ-সামাজিক প্রতিটি ক্ষেত্রের সূচকে বাংলাদেশ সন্তোষজনক অগ্রগতি অর্জন করেছে এবং এখন সামনে এগিয়ে যাচ্ছে। এ সময়ে অব্যাহত প্রবৃদ্ধি, মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি, মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জন করেছে। বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষাবিদরা শেখ হাসিনাকে ‘এ্যাম্বাসেডর অব গ্লোবাল পিস’ এবং ‘মেইন লিডার অব দ্য হিউম্যানিটারিযান ওয়ার্ল্ড’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

ড. কামালের ওপর হামলার ঘটনা জানে না কমিশন: ইসি সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, ড. কামাল হোসেনের ওপর হামলার ঘটনার বিষয়ে . . . বিস্তারিত

দুই পয়সার হামলাকারীদের চার পয়সা দেবো, চলে আসো: ড. কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, আমাদের উপর হামলা এদে . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com