ট্রাম্পের অপশক্তিকে ধ্বংস করা হবে: হেফাজতে ইসলাম

১৩ ডিসেম্বর,২০১৭

ট্রাম্পের অবৈধ অপশক্তিকে ধ্বংস করা হবে: হেফাজতে ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: ‘অবিলম্বে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর ঘোষণা প্রত্যাহার করা না হলে পৃথিবীর সকল মুসলমান এক করে ট্রাম্পের অবৈধ অপশক্তিকে ধ্বংস করা হবে।’ বলে হুশিয়ারি করেছেন হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি নূর হোসেন কাসেমি।

বুধবার সকাল ১০টায় বায়তুল মোকাররম উত্তর গেট জড়ো হন হেফাজত নেতা-কর্মীরা। বেলা ১১ টার দিকে সেখান থেকে তারা বারিধারায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের উদ্দেশে রওয়ানা হয়। আর এই সময় মোকাররম উত্তর গেটে বক্তৃতা করেন হেফাজতে ইসলাম নেতৃবৃন্দ। তবে এসময় পুলিশ হেফাজতের সমাবেশ ঘেরাও করে রেখেছিল।

সমাবেশে হেফাজত নেতারা বলেন, ‘ট্রাম্প একটা বদ্ধ পাগল, এই পাগল বিশ্বের মুসলমানদের ধ্বংস করতে বিভিন্ন ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে। উন্মাদ ট্রাম্প তৃতীয় বিশ্ব যুদ্ধ লাগাতে উঠে পরে লেগেছে। আর এ জন্যই জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করেছে।’

সমাবেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে রাষ্ট্রীয় সব সম্পর্ক ছিন্ন এবং ইসরাইলের পণ্য বর্জনের আহ্বানও জানিয়ে হেফাজতের নেতারা ঘোষণা দেন ‘যত দিন ট্রাম্পের ঘোষণা প্রত্যাহার বা করা হবে ততদিন হেফাজতের কর্মসূচি চালিয়ে যাবে।’

সমাবেশ শেষে বুধবার বেলা ১২টার দিকে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেট থেকে মার্কিন দূতাবাস অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে এগিয়ে যেতে থাকেন হেফাজতের নেতাকর্মীরা। মিছিলটি পল্টন, কাকরাইল, শান্তিনগর, মালিবাগ মোড়, মৌচাক ও রামপুরা হয়ে দূতাবাসের দিকে যাওয়ার কথা থাকলেও নেতাকর্মীরা শান্তিনগর পর্যন্ত এসে থেমে গেছেন।

শান্তিনগর মোড়ে পুলিশের ব্যারিকেড থাকায় হেফাজতের নেতাকর্মীরা সামনে এগুতে পারছিল না। পরে পুলিশের সহায়তায় হেফাজত নেতা নূর হোসেন কাসেমীর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল স্মারকলিপি দিতে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসে যায়। প্রতিনিধি দলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- মাহফুজুল হক, আহমাদ আবদুল কাদের, আজীজুল হক ইসলামাবাদী ও ফজলুল করীম কাসেমী।

এর আগে মঙ্গলবার মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি সফল করার আহ্বান জানিয়ে হেফাজত ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী বলেছেন, পবিত্র মসজিদুল আকসাকে ঘিরে গড়ে ওঠা জেরুসালেম নগরীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসেডিন্ট অন্যায়ভাবে ইহুদিবাদী ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করে মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে যুদ্ধ লাগিয়ে দিয়েছে। তার সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিশ্ব মুসলিম নেতৃবৃন্দ ও জনসাধারণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

গত ৭ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করেন। এর প্রতিবাদে 8 ডিসেম্বর বায়তুল মোকাররমে এক প্রতিবাদ মিছিল থেকে মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি ঘোষণা করে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

ড. কামালকে কূটনীতিকরা, পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী কাকে বানাবেন?

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ঢাকায় অবস্থানরত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন বিএনপি ও জাতীয় ঐক্য . . . বিস্তারিত

খালেদার জিয়ার চ্যারিট্যাবল মামলায় হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে জিয়া চ্যারিট্যাবল ট্রাস্ট মামলার কার্যক্রম বিচারিক আদালতে চলবে হ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com