আর তাহলে এ সরকারও অবৈধ হয়ে যেত: মোশাররফ

১৪ নভেম্বর,২০১৭

আওয়ামী লীগের দিন শেষ: খন্দকার মোশাররফ

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: আওয়ামী লীগের দিন শেষ হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী কৃষকদল আয়োজিত জাতীয় এক সভায় তিনি এই মন্তব্য করেন।

জাতীয়তাবাদী কৃষকদল সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদুর সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতিউর রহমান ঢালী, যুগ্ম-সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কৃষকদলের সহ-সভাপতি নাজিম উদ্দিন, আরেক সহ-সভাপতি সৈয়দ মেহেদি আহমেদ রুমি, এম এ তাহের ও ঢাকা মহানগর কৃষকদলের আহ্বায়ক নাসির হায়দার প্রমূখ।

এসময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন আরো বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় সরকারকে জনগণ বার্তা দিয়েছে আওয়ামী সরকারের দিন শেষ।

বেগম খালেদা জিয়া যে বক্তব্য দিয়েছেন তা জনগণের বার্তা বলে তিনি মন্তব্য করেন। ২০১৪ সাল থেকে আওয়ামী লীগ জোর করে ক্ষমতা দখল করে আছে বলেও অভিযোগ করেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা শুনতে পাচ্ছিলাম সংসদের অনির্বাচিত ১৫৪ জনের বিরুদ্ধে একটি রিট করা আছে। প্রধান বিচারপতি ছুটি থেকে ফিরে এসে এ বিষয়ে রায় দেবেন বলে কথা ছিল। হয় তো সিদ্ধান্ত আসতে পারতো, ১৫৪ আসন অবৈধ। আর তাহলে এ সরকারও অবৈধ হয়ে যেত।

সেই আশঙ্কা থেকে সরকার সুস্থ মানুষকে অসুস্থ বানিয়ে প্রথমে দেশত্যাগে এবং পরে পদত্যাগে বাধ্য করেছেন। এভাবে সরকার রাষ্ট্রের অন্যতম স্তম্ভ ধ্বংস করে এভাবে বিচার বিভাগকে দখলে নিতে চায় বলে তিনি অভিযোগ করেন।

দেশে অলিখিত বাকশালী শাসন চলছে বলে অভিযোগ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ বলেন, যথা সময়ে জননেত্রী খালেদা জিয়া নির্দলীয় সরকারে অধীনে নির্বাচনের রুপরেখা ঘোষণা করবেন বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

শেখ হাসিনার অধীনে কোন নির্বাচন হবে না বলেও তিনি সরকারকে সর্তক করিয়ে দেন। জনগণ প্রস্তুত তাদের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে আগামী নির্বাচনে খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাতে।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, দেশে এখন আর কোনো গণতন্ত্র নেই। দেশের মানুষের নিরাপত্তা বলে কিছু আর নেই। হত্যা, গুম, খুন, দ্রব্যমূল্যের আকাশ ছোঁয়া দাম, এসব নিয়ে মানুষের জীবন দুর্বিষহ। জনগণ আর আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না, বরং তারা আওয়ামী লীগের কবল থেকে মুক্তি চায়। তারা আওয়ামী লীগের প্রতি ক্ষুব্ধ।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

নাগরিক সভায় বঙ্গবীর ও নাজমুল হুদা

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নাগরিক সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক বঙ্গ . . . বিস্তারিত

এদেশে ভোটারবিহীন নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না : রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনখুলনা: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, ৫ জানুয়ারির মত এদেশে আর কোনো . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com