বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতেই বিএনপি সিনহাকে নিয়ে মিথ্যাচারে লিপ্ত ছিল: হানিফ

১২ নভেম্বর,২০১৭

হানিফ

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
কুষ্টিয়া: বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতেই বিচারপতি এস কে সিনহাকে সুস্থ বলে দাবি করে বিএনপি শুরু থেকেই মিথ্যাচারে লিপ্ত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। তিনি বলেন, সিনহা একজন অসুস্থ মানুষ, তা মিডিয়ার খবরে প্রমাণিত হয়েছে।

রবিবার দুপুরে কুষ্টিয়া শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে আয়োজিত জাতীয় শ্রমিক লীগ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেয়ার আগে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, এস কে সিনহা সিঙ্গাপুরে ক্যানসারের চিকিৎসা নিয়ে কানাডা গেছেন। এতে প্রমাণ হয়, তিনি অসুস্থ। অথচ শুরু থেকেই তাকে সুস্থ দাবি করে বিএনপি মিথ্যাচার করে আসছিল। প্রধান বিচারপতি যেভাবে চেয়েছেন, সেভাবেই অবসরে গিয়েছেন। এখানে কারও কোনোকিছু বলার নেই।

তিনি বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান বিচার বিভাগকে প্রথম কলুষিত করেছিলেন। তিনি সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠন করে সেটাকে ব্যবহার না করেই বহু বিচারপতিকে অপসারণ করেছিলেন। বিএনপির বিচার ব্যবস্থাকে কলুষিত করার অতীত রাজনীতি দেখেছে জাতি। এই নোংরা রাজনীতি পরিহার করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিচার ব্যবস্থার প্রতি সব সময় শ্রদ্ধাশীল এবং গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির সমাবেশে লোকসমাগমে বাধা দেয়ার অভিযোগ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘নিয়ম অনুযায়ী সমাবেশের জন্য বিএনপি অনুমতি চেয়েছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অনুমতি দিয়েছে। বাধা দেওয়ার প্রশ্নই আসে না। এ নিয়েও অসুস্থ রাজনীতি করছে বিএনপি।

সম্প্রতি দেওয়া তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর মন্তব্যের ব্যাপারে জানতে চাইলে হানিফ বলেন, এ ব্যাপারে দলের সাধারণ সম্পাদক কথা বলেছেন। এরপরে কিছু বলার নেই। কার কী অবস্থান আছে, দলের সাধারণ সম্পাদক বলে দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ বা নৌকা ছাড়া কার কী অবস্থান আছে, সেটা সবাই জানে।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে কুষ্টিয়ার মিরপুরে জাসদের জনসভায় ইনু স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘আপনি (আ.লীগ নেতা) আশি পয়সা। আর এরশাদ, দিলীপ বড়ুয়া, মেনন আর ইনু মিললে এক টাকা হয়। আমরা যদি না থাকি, তাহলে আশি পয়সা নিয়ে রাস্তায় ফ্যা-ফ্যা করে ঘুরবেন। এক হাজার বছরেও ক্ষমতার মুখ দেখবেন না।’

পরের দিন এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, হাসানুল হক ইনুও জানেন, একা নির্বাচন করলে তিনি কত ভোট পাবেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, কার্যকরী সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, সিনিয়র সহ সভাপতি হাজি রবিউল ইসলাম, কুষ্টিয়া জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ আলী প্রমুখ।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

‘সরকার জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে, আর বিএনপি প্রশ্ন তুলেছে’

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ‘আওয়ামী লীগ সরকার যখন এই জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে তখনই আমরা দেখতে পেয়েছ . . . বিস্তারিত

খালেদা জিয়া আবার ক্ষমতায় আসবেন সেই গন্ধ পাচ্ছেন না:দুদু

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনঢাকা: ‘১/১১ কেন? একমাস পরে যে আপনারা আর ক্ষমতায় থাকতে পারবেন না, বেগম খালেদা জিয়া আবার ক . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com