কূটনীতিকদের সঙ্গে বিএনপি নেতাদের বৈঠক

১১ অক্টোবর,২০১৭

রাজধানীর একটি হোটেলে কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন বিএনপি নেতারা-ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: রাজধানীর একটি হোটেলে কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বিএনপি নেতারা। ওই বৈঠক বিচার বিভাগের বর্তমান পরিস্থিতি অবহিত করতে বিভিন্ন দেশের কূটনৈতিকদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলে বিএনপির একটি সূত্র জানিয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানী গুলশানের একটি হোটেলে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় বলে জানা গেছে।

বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, বিএনপি নেতারা বৈঠকে বিচারবিভাগের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, প্রধান বিচারপতির ছুটির আবেদনে এতোগুলো ভুল প্রমাণ করে যে, তাকে জোর করে ছুটিতে পাঠানো হচ্ছে। তিনি এটা চাইছেন না। তিনি পূজাতে যাচ্ছেন, অস্ট্রেলিয়ান হাই কমিশনে যাচ্ছেন, ডাক্তারের কাছে যাচ্ছেন। তাকে যতটা অসুস্থ বলা হচ্ছে, তেমনটা মনে হচ্ছে না।

উদ্বেগ জানিয়ে বিএনপি নেতারা বলেছেন, এতে করে বাংলাদেশের স্বাধীন বিচারব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। সরকার সমস্ত ক্ষমতা কুক্ষিগত করছে বলেও অভিযোগ করা হয়।

বৈঠকে য্ক্তুরাষ্ট্র, চীন, যুক্তরাজ্য, তুরস্ক, ভারত, নরওয়ে ডেনমার্ক, জাপান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, সৌদি আরব, অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, সুইডেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইইউ, ইন্দোনেশিয়াসহ বিভিন্ন দেশের কুটনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন।

নেতাদের মধ্যে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদ, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার নওশাদ জমির উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুলের বিবৃতি
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশে মৌলিক ও মানবাধিকার আগেই ভুলুন্ঠিত হয়েছে। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করা হয়েছে। আইন-আদালতও এখন শাসকগোষ্ঠীর নিয়ন্ত্রণে। বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করে শাসকগোষ্ঠী দেশে এক শ্বাসরুদ্ধ অবস্থার সৃষ্টি করেছে। রাজনৈতিক নেতাকর্মী ছাড়াও দেশের সাধারণ মানুষও নিজেদের জানমালের নিরাপত্তা নিয়ে এখন গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী’র আমির মকবুল আহমাদ, সেক্রেটারি জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমানসহ দলটির ৯ জন নেতাকে আটক, চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ লেবার পার্টির একটি অনুষ্ঠানে পুলিশ হামলা চালিয়ে সংগঠনটির চেয়ারম্যান ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান ইরানসহ বিএনপি এবং যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদলের ২১ জন নেতাকর্মী এবং ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর হোসেন ঈসাকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান বিনা ভোটের সরকার বিএনপিসহ দেশের বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে বানোয়াট এবং ভিত্তিহীন মিথ্যা মামলা দিয়ে নির্যাতন ও হয়রানী অব্যাহত রেখেছে। সামবার বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী’র শীর্ষ নেতাদের মিথ্যা অভিযোগে আটক করা কোনো সুস্থ রাজনীতি নয়।

বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, সরকার কোনভাবেই বিরোধী মতকে সহ্য করছে না এবং তারা রাজনীতি বিজ্ঞানের পরিভাষা থেকে গণতন্ত্র শব্দকে মুছে দিতে চায়-যা এককদলীয় শাসন ব্যবস্থাকে পাকাপোক্ত করার জন্য অতীব জরুরী। বিএনপিসহ অন্যান্য বিরোধী দলসমূহ সংবিধান স্বীকৃত সকল রাজনৈতিক অধিকার থেকে এখন পুরোপুরি বঞ্চিত। দেশের গণতন্ত্রের তিলমাত্র অবশিষ্ট নেই।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, দেশব্যাপী বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদেরকে যে হারে গণগ্রেপ্তার করা হচ্ছে তা দেশের জন্য শুভ লক্ষণ নয়। আমি বর্তমান সরকারের এধরণের হিংসাত্মক আচরণের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃত বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নেতৃবৃন্দসহ তাদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ষড়যন্ত্রমূলক রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবী জানাচ্ছি।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে নাটক বিচার বিভাগের ইতিহাসে নজিরবিহীন: জামায়াত

নিউজ ডেস্কআটিএনএনঢাকা: বিচার বিভাগের উপর সরকারের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার অপচেষ্টায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে জামায়াতে ইসলামীর . . . বিস্তারিত

রোহিঙ্গাদের বিপর্যয়ে তাদের পাশে না দাঁড়ালে তা অমানবিক হতো: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: মানবিক কারণেই সরকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com