‘আ.লীগ হেরে যাওয়ার ভয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে চায় না’

১০ অক্টোবর,২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ জানে যদি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নিরপেক্ষভাবে নির্বাচন হয়, আর দেশের মানুষ যদি সঠিকভাবে ভোট দিতে পারে তাহলে কোনোমতেই রাষ্ট্রক্ষমতায় ফিরে আসতে পারবে না।

মঙ্গলবার বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে শহীদ জেহাদ পরিষদ আয়োজিত নব্বইয়ের স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে পুলিশের গুলিতে নিহত নাজিরউদ্দিন জেহাদের ২৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ আবারো একতরফা নির্বাচন করার লক্ষ্যে ‘নীলনকশা’ অনুযায়ী এগিয়ে চলছে। তারা জানে যদি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নিরপেক্ষভাবে নির্বাচন হয়, আর দেশের মানুষ যদি সঠিকভাবে ভোট দিতে পারে তাহলে কোনোমতেই রাষ্ট্রক্ষমতায় ফিরে আসতে পারবে না। এই ভয়েই তারা নির্বাচন সেভাবে হতে দিতে চায় না। ক্যারিক্যাচার, কারুকার্য- ফুটবল খেলায় দেখেন তো আপনারা।

মির্জা ফখরুল বলেন, তাদের বিভিন্ন পদক্ষেপ বিশ্বের তারকা ফুটবলার লিওনেল মেসির মতো। সেখানে সেন্টার ফরোয়ার্ড সেই মেসির মতো, ড্রিবলিং করে বলকে কাটিয়ে কাটিয়ে নিয়ে যায়, এরা হচ্ছে সেই ড্রিবলিং করে করে বল নিয়ে খালি মাঠে গোল দিতে চাচ্ছে।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনর্বহালের দাবিতে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির ভোট বর্জন করে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট। ওই নির্বাচনে জয়ী হয়ে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ।

বিএনপি এখন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি থেকে সরে এসে নির্বাচনকালীন ‘সহায়ক সরকার’ চাইছে। তবে ক্ষমতাসীনরা বলছেন, সংবিধান অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বাধীন সরকারের অধীনেই আগামী নির্বাচন হবে।

শেখ হাসিনা সরকারপ্রধান থাকাকালে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না দাবি করে এ বিষয়ে সমঝোতার জন্য সংলাপে বসতে ইতোমধ্যে কয়েক দফা আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল। কিন্তু তার আহ্বানে সাড়া দিচ্ছেন না আওয়ামী লীগ নেতারা। এই প্রেক্ষাপটে বিষয়টি নিয়ে জনগণের কাছে যেতে নেতাকর্মীদের পরামর্শ দেন ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘আমাদের দায়িত্বটা স্পষ্ট- রাজনৈতিক দল হিসেবে, রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে দেশপ্রেমিক হিসেবে, গণতন্ত্রকামী মানুষ হিসেবে আমাদের দায়িত্ব জনগণকে সচেতন করা। এই যে ভয়াবহ একটা নীলনকশা, সেই নীলনকশাকে পরাজিত করে দিয়ে জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠা করা, নির্বাচন নিশ্চিত করা।’

সরকারের ‘দমন-পীড়ন’ উপেক্ষা করে নেতাকর্মীদের আরো ত্যাগ স্বীকারের জন্য প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

ডাকসুর সাবেক ভিপি ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে ও নাজিম উদ্দিন আলমের পরিচালনায় আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে সাবেক ছাত্রনেতা শামসুজ্জামান দুদু, হাবিবুর রহমান হাবিব, ফজলুল হক মিলন, আসাদুজ্জামান রিপন, খায়রুল কবির খোকন, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, খন্দকার লুৎফর রহমান, সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, আসাদুর রহমান খান, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, কামরুজ্জামান রতন, আজিজুল বারী হেলাল, এবিএম মোশাররফ হোসেন, মীর সরফত আলী সপু বক্তব্য রাখেন।

যুব দলের সাইফুল ইসলাম নিরব, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের শফিউল বারী বাবু, আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল, মহিলা দলের হেলেন জেরিন খান, ছাত্র দলের রাজীব আহসান, প্রয়াত জেহাদের ভাই কেএম বশিরও বক্তব্য দেন।

সকালে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, আমাউল্লাহ আমান ও হাবিবুর রহমান হাবিবসহ নেতারা দৈনিক বাংলা মোড়ে শহীদ জেহাদ স্মৃতি স্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এ সময় পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

সমাবেশে যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্যের নেতাদের আমন্ত্রণ জানানোর নীতিগত সিদ্ধান্ত বিএনপির

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: রাজধানীতে বিএনপির ২৭ সেপ্টেম্বরের সমাবেশে যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতাদের আমন্ . . . বিস্তারিত

আমানুরের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ নেতা হত্যাচেষ্টা মামলায় অভিযোগপত্র 

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনটাঙ্গাইল: ছাত্রলীগের এক নেতাকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টার মামলায় আ’মীলীগ দলীয় সাংসদ আমানুর রহমান . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com