‘সরকার বিচার বিভাগকে বিতর্কিত করে নিজেদের পতনকে ত্বরান্বিত করছে’

১৩ আগস্ট,২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে সরকার বিচার বিভাগকে যেভাবে বিতর্কিত করছে তাতে তারা নিজেদের পতনকেই ত্বরান্বিত করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ।

সরকারবিরোধী আন্দোলনে বিভিন্ন সময় নিহত বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের পরিবারের সদস্যদের সহায়তা উপলক্ষে রবিবার বিকালে রাজধানিতে ‘অর্পণ বাংলাদেশ’ নামের একটি সংগঠন আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফেরাতে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার পূর্ণাঙ্গ রায় ১ অগাস্ট প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে রায়ের পর্যবেক্ষণ নিয়ে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার সমালোচনা করছেন সরকারের মন্ত্রীরা।

মন্ত্রী-এমপিদের এই প্রতিক্রিয়াকে ‘বিচার বিভাগের স্বাধীনতার বিপক্ষে যুদ্ধ ঘোষণা’ হিসেবে দেখছেন সাবেক আইনমন্ত্রী মওদুদ।

মন্ত্রীদের বক্তব্যের সমালোচনা করে মওদুদ বলেন, ‘একেক মন্ত্রী একেক কথা বলছেন। আমি অবাক হয়ে যাই যে, কেউ কেউ প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ পর্যন্ত চাচ্ছেন। এমন বক্তব্য দিচ্ছেন যেটা আমাদের জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক।’

তিনি বলেন, ‘মন্ত্রীদের বক্তব্য শুনে মনে হয়, বিচার বিভাগের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে তারা আন্দোলনে নেমেছেন। তারা জনমত সৃষ্টি করছেন, সারা বাংলাদেশে কর্মসূচি দিচ্ছেন। কীসের জন্য?’

বিচার বিভাগকে অবমূল্যায়নের ফল ভালো হবে না বলে সতর্ক করে তিনি বলেন, ‘যারাই বিচার বিভাগের ওপর হাত দিয়েছে, তাদেরই হাত পুড়ে গেছে। সংসদ চলে যাবে, সরকার চলে যাবে, রাজনৈতিক প্রশাসনও চলে যাবে, কিন্তু বিচার বিভাগ থেকে যাবে।’

আইন কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক সরকারের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করছেন অভিযোগ তার পদত্যাগ দাবি করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ।

অনুষ্ঠানে নিহত চট্টগ্রামের ছাত্রদল নেতা নুরুল আলম নুরু, সাতক্ষীরার আজহার মিয়া, মাগুরার মারুফ সরদার ও নোয়াখালীর মো. লিটনের পরিবার এবং পঙ্গু হয়ে যাওয়া স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা শাহ আলমকে আর্থিক সহযোগিতা দেয়া হয়।

আয়োজক সংগঠনের সভানেত্রী বীথিকা বিনতে হোসাইনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মেরাজ আজিমের পরিচালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে যুব দলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, মহানগর উত্তরের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, ছাত্র দলের সেলিনা সুলতানা নিশিতা, ‘অর্পণ বাংলাদেশ’র সৈয়দ সোহেল, শ ই রাহী, কাজী জিয়াউদ্দিন বাসেত, মো. ইলিয়াস, শৈবাল হোসেন, রমিজ রাসেল বক্তব্য দেন।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

বৃহস্পতিবার বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে শ্রদ্ধা জানাতে যাবেন খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শ্রদ্ধা জানাতে বৃহস্পতিবার মিরপুরে বুদ্ধিজীবী কবর . . . বিস্তারিত

১৫৪ এমপি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত, এটা কি গণতন্ত্র: প্রশ্ন বি. চৌধুরীর

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ‘কোনো নির্বাচন ছাড়াই ১৫৪জন সংসদ সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। তাদের . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com