ষোড়শ সংশোধনী

এ রায়ে ১৬ কোটি মানুষের মনের ব্যাথা বেদনার বহিঃপ্রকাশ: মওদুদ

১১ আগস্ট,২০১৭

নিজস্ব প্রতিনিধি

আরটিএনএন

নোয়াখালী: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, সুপ্রিম কোর্টের মহামান্য বিচারপতিরা আমাদের মুখের দিকে তাকিয়ে রায় দেননি। এ রায়ে ১৬ কোটি মানুষের মনের অনেক ব্যাথা বেদনার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে।


শুক্রবার দুপুরে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের নিজ বাড়িতে কবিরহাট উপজেলা ও সদর পূর্বাঞ্চল, কবিরহাট পৌরসভা ও ইউনিয়নে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


তিনি বলেন, ষোড়শ সংশাধনীর মাধ্যমে দেশে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সর্বোচ্চ আদালতের রায় আওয়ামী লীগ মানতে চায় না।


মওদুদ আহমদ বলেন, সুপ্রিম কোর্টের মহামান্য বিচারপতিরা আমাদের মুখের দিকে তাকিয়ে রায় দেননি। এ রায়ে ১৬ কোটি মানুষের মনের অনেক ব্যাথা বেদনার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। বিশেষ করে এ সরকারের ৯ বছরের শাসনের নালিশের কিছুটা প্রকাশ পেয়েছে। এতে সরকার ক্ষুব্ধ হলেও কোনো লাভ নেই। এ রায় মানতে হবে। 


বিএনপির এ নেতা বলেন, ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের পর সরকার বিচলিত হয়ে পড়েছে। তাদের অবস্থা এখন নড়বড়ে। তারা নানা রকমের প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে। এ রায় তারা মেনে নিতে পারছে না। জনগণের কাছেও যেতে পারছে না।


তিনি আরো বলেন, এ দেশে যখনই গণতন্ত্রের একটা সম্ভাবনা দেখা দেয় তখনই ফ্যাসিবাদ সরকার বিরোধী দলের ওপর আরো জেল-জুলুম বাড়িয়ে দেয়। এ সরকারের পতন এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। সে সময় ঘনিয়ে আসছে। সরকার এখন জনগণকে ভয় পায়। বিএনপির সভায় মানুষ আসলে তারা হিংসা করে।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

তিন কারণে বিএনপির মন খারাপ: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তিন কারণে বিএন . . . বিস্তারিত

‘তারেককে ইন্টারপোলের মাধ্যমে দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে’

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় তারেক রহমান . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com