রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপ

আইন প্রণয়ন ও ই-ভোটিংসহ আ.লীগের ৪ প্রস্তাব ১১ সুপারিশ

১১ জানুয়ারি,২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে ভোট নেয়াসহ মোট চারটি প্রস্তাব করেছে আওয়ামী লীগ। সংলাপে নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতিকে সিদ্ধান্ত গ্রহণে একক এখতিয়ার দেয়া হয়েছে। এছাড়াও সংবিধানের ১১৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন গঠন করার প্রস্তাব দিয়েছে দলটি।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সংলাপ শেষে ফিরে এসে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দলটির সভাপতির ধানমণ্ডিস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি জানান, নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতিকে চারটি সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা এবং অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য আরও ১১টি গুরুত্বপূর্ণ সুপারিশ তুলে ধরা হয়েছে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে।

এই চার প্রস্তাব হচ্ছে:

১. গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১১৮-এর বিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা ও অন্য কমিশনারদের নিয়োগ দেবেন।

২। প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা ও অন্য কমিশনারদের নিয়োগের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতি যা উপযু্ক্ত বিবেচনা করবেন, সে প্রক্রিয়ায় তিনি নির্বাচন কমিশনারদের নিয়োগ দেবেন।

৩। প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা ও অন্য কমিশনারদের নিয়োগের লক্ষ্যে সম্ভব হলে এখনই একটি উপযুক্ত আইন প্রণয়ন অথবা অধ্যাদেশ জারি করা যেতে পারে। সময় স্বল্পতার কারণে ইসি পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে তা সম্ভব না হলে পরবর্তী নির্বাচন কমিশন গঠনের সময় যেন এর বাস্তবায়ন সম্ভব হয়, সংবিধানের নির্দেশনার আলোকে এখন থেকেই সেই উদ্যোগ গ্রহণ করা।

৪। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য বিরাজমান সব বিধিবিধানের সঙ্গে জনগণের ভোটাধিকার অধিকতর সুনিশ্চিত করার স্বার্থে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ই-ভোটিং চালু করা।

তিনি জানান, সুনির্দিষ্ট এসব প্রস্তাবের বাইরেও একটি অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য আরও ১১টি গুরুত্বপূর্ণ সুপারিশ রাষ্ট্রপতির কাছে তুলে ধরেছে আওয়ামী লীগ। এগুলো হচ্ছে:

১. একটি স্বাধীন ও কার্যকর নির্বাচন কমিশন

২. নির্বাচনকালীন সময়ে নির্বাহী বিভাগের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/সংস্থার দায়িত্বশীলতা

৩. নির্বাচন কমিশন সচিবালয় ও এর মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের দায়িত্বশীলতা ও নিরপেক্ষ আচরণ

৪. ছবিযুক্ত একটি নির্ভুল ভোটার তালিকা এবং ভোটগ্রহণের দিন নির্বাচন কেন্দ্রের সার্বিক নিরাপত্তা

৫. নির্বাচন পরিচালনায় বেসরকারি সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের পরিবর্তে কেবলমাত্র প্রজাতন্ত্রের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা/কর্মচারীদের প্রিজাইডিং অফিসার থেকে পোলিং অফিসার পদে নিয়োগ করা

৬. আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত সদস্যদের নিরপেক্ষ ও দায়িত্বশীল আচরণ

৭. দেশি/বিদেশি পর্যবেক্ষক থেকে শুরু করে মিডিয়া ও সিভিল সোসাইটির সদস্যদের নির্মোহ তৎপরতা

৮. নির্বাচনে পেশিশক্তি ও অর্থের প্রয়োগ বন্ধ এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়সহ সকল পর্যায়ের ভোটারের অবাধ ভোটদানের সুযোগ নিশ্চিত করা

৯. নির্বাচনের পূর্বে ও পরে এবং নির্বাচনের দিন ভোটারসহ সর্ব সাধারণের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা

১০. নির্বাচনকালীন সময়ে প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীসহ নির্বাচন পরিচালনার জন্য আবশ্যকীয় সকল সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানকে নির্বাচন কমিশনের তত্ত্বাবধানে ন্যস্ত করা

১১. নির্বাচনকালীন সরকারের কর্মপরিধি কেবলমাত্র আবশ্যকীয় দৈনন্দিন (রুটিন) কার্যাবলীর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকা।

এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন ইস্যুতে বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ঐকমত্য হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন (ইসি) পুনর্গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের আমন্ত্রণে ১৯ সদস্যের প্রতিনিধি দল নিয়ে বুধবার বিকেলে বঙ্গভবনে সংলাপে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বিকাল ৪টা থেকে দেড় ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক সম্পন্ন হয় দলটির নেতাদের। এ বৈঠক থেকে বেরিয়ে সংলাপ ফলপ্রসূ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের এই মুখপাত্র।

প্রসঙ্গত: গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর বিএনপির সঙ্গে বৈঠকের মাধ্যমে সংলাপের সূচনা করেন রাষ্ট্রপতি। এরপর কয়েক দফায় বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করেছেন তিনি। সর্বশেষ বুধবার ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে বৈঠক করবেন রাষ্ট্রপতি। এ পর্যন্ত আওয়ামী লীগসহ ২৩টি রাজনৈতিক দল রাষ্ট্রপতির সংলাপে আমন্ত্রণ পেয়েছে।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

২০ দলীয় জোটে থাকবে জামায়াত: মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএননীলফামারী: ‘আমাদের ২০ দলীয় জোট অটুট রয়েছে। এখনও জামায়াতের রাজনীতি নিষিদ্ধ করা হয়নি। তাই আগ . . . বিস্তারিত

গণতন্ত্র ও আইনের শাসন ফিরে পেতে আন্দোলন গড়ে তুলুল: মওদুদ

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: দেশে গুম অপহরণের ঘটনা অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটি . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com