‘গণআদালতে কার বিচার হবে তা সময়ই বলে দিবে’

১১ জানুয়ারি,২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: বিএনপির স্থায়ীকমিটির সদস্য গয়েশ্ব চন্দ্র রায় বলেছেন, গণআদালতে কার বিচার হবে তা একমাত্র সময়ই বলে দিবে।

তিনি বলেন, সময় হলে জনগণের আদালতে জনগণই বিচার করবে।

১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে এক জনসভায় দেয়া ‘জঙ্গি উস্কানি দাতাদের বিরুদ্ধে গণআদালতে বিচার হবে’প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি এসব কথা বলেন।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘ষড়যন্ত্র ও ওয়ান ইলেভেনের সরকার’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বিএনপির এ নেতা বলেন, এ সরকার এমন কোনো ধারা নেই যার অধীনে বিএনপির নেতাদের মামলা দেয়নি। শুধু ধর্ষণের মামলা ছাড়া।

তিনি বলেন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা যেখানে নেই সেখানে গণতন্ত্রে আশা করা যায় না। গণতন্ত্র মানে শুধু ভোটের অধিকার বা সরকার পরিবর্তনকেই বোঝায় না। গণতন্ত্র হলো মানুষের কথা বলার অধিকার, ইচ্ছা প্রকাশ করার অধিকারক নিশ্চিত করা।

মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত নামের তালিকা জনগণের জানা দরকার উল্লেখ করে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, গেজেট প্রকাশ করে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা এবং রাজাকারের নামের তালিকা প্রকাশ করুন।

তিনি বলেন, আমরা কথা বললেই দোষ। প্রকৃত তথ্য জনগণের জানা দরকার। তাই আপনারাই প্রকৃত নামের তালিকা প্রকাশ করুন।

তিনি অভিযোগ প্রকাশ করে বলেন, বিএনপির সমাবেশে করতে অনুমতি চাইলেই নাশকতার দায় দিয়ে অনুমতি দেয়া হয় না। কিন্তু আ.লীগ তো সমাবেশের নামে জনসাধারণের দুর্ভোগের কারণ হচ্ছে।

নাসিক নির্বাচন প্রসঙ্গটেনে বিএনপির এই নীতি নির্ধারক বলেন, নারায়ণগঞ্জ নির্বাচনে ভোট ডাকাতি হয়নি চুরি হয়েছে।

বর্তমান সরকারে অপকর্ম সম্পর্কে তিনি বলেন, এ সরকারের অপকর্মের যে ওজন কত তা পরিমাপ করেও বলা যাবে না।

মন্তব্য

মতামত দিন

রাজনীতি পাতার আরো খবর

নির্বাচন নিয়ে কারো সঙ্গে আলাপ-আলোচনা হতে পারে না: খাদ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ‘নির্বাচন নিয়ে কারো সঙ্গে আলাপ-আলোচনা হতে পারে না’ বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ . . . বিস্তারিত

খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে আবারো বাকশাল কায়েমের পরিকল্পনা করছে: ফারুক

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ‘১৯৭৫ সালে ২ মিনিটে সংসদে আওয়ামী লীগ সরকার যে বাকশাল কায়েম করেছিল, বাংলাদেশের সকল সং . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com